ঐতিহ্যবাহী বগুড়ার দই বানানোর সহজ রেসিপি!

shajghor_Bograr Doi
দই সকলেরই প্রিয় খাবার। তার মধ্যে বগুড়ার ঐতিহ্যবাহী দই বলে কথা। যার নাম শুনলেই জিহব্বায় জল এসে যায়। একটু ভারী খাবারের পর দই খাওয়া অনেকেই পছন্দ করেন, বিশেষ করে মিষ্টি দই। এবং এটি স্বাস্থ্যের জন্য বেশ ভালো। চাইলে ঘরেই বানিয়ে নিতে পারেন বগুড়ার মতো সুস্বাদু ও পারফেক্ট মিষ্টি দই, খুব সহজেই। ভাবছেন কীভাবে? চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পারফেক্ট ঐতিহ্যবাহী বগুড়ার ‘মিষ্টি দই’ বানানোর সহজ রেসিপিটি।

উপকরণঃ

– দুধ ১ লিটার
– পানি ১ কাপ
– চিনি ২০০ গ্রাম
– দইয়ের বীজ ২ টেবিল চামচ
– ১ টি মাটির পাত্র।

দইয়ের বীজ তৈরির পদ্ধতিঃ

দইয়ের বীজ যেভাবে নিবেন_
১) আগের দই থেকে ২ টেবিল চামচ সরিয়ে রাখুন।

২) ১ কাপ দুধে ১ কাপ পরিমাণে গুঁড়ো দুধ দিয়ে ভালো করে জ্বাল দিয়ে ক্ষীরসা তৈরি করে নিন। এটিই দইয়ের বীজ হিসেবে কাজ করবে।

দই জমানোর পদ্ধতিঃ

– একটি পাত্র দুধ নিয়ে এতে ১ কাপ পানি মিশিয়ে মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে থাকুন।

– দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেক পরিমাণে হয়ে এলে এতে চিনি দিয়ে ভালো করে নেড়ে দিন।

– দুধ আরও ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে কিছুক্ষণ ঠাণ্ডা হতে দিন।

– আঙুল ডুবিয়ে দেখুন গরম সহ্য করা যায় কিনা। এই ধরণের গরম থাকতে দুধে দইয়ের বীজ দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিন।

– এরপর মাটির পাত্রে ঢেলে ভারী মোটা কাপড় বা চটের কিছু দিয়ে ঢেকে অন্ধকার ও ঠাণ্ডা জায়গায় রেখে দিন ৬-৭ ঘণ্টা।

– ৬-৭ ঘণ্টার মধ্যে দই জমে যাবে। যদি ঠাণ্ডা দই খেতে চান তবে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করুন।

– এরপর ফ্রিজ থেকে বের করে পরিবেশন করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *