ওজন কমানোর জন্য সবথেকে কার্যকরী আয়ুর্বেদিক ওষুধ!

ওজন কমানোর আয়ুর্বেদিক ওষুধ। এই লেখায় এমন একটি ঘরোয়া ওষুধ নিয়ে আলোচনা করা হবে, যা খেলে যখন আপনি ঘুমাবেন তখনও ফ্যাট বার্ন হতে থাকবে। ফলে ওজন কমবে অনেক দ্রত গতিতে। আর এই ওষুধটি যেহেতু প্রকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি, তাই শরীরের উপর বিরুপ প্রভাব পড়ারও আশঙ্কা থাকবে না। তাহলে অপেক্ষা কীসের! চলুন জেনে নেওয়া যাক ওজন কমানোর ওষুধটি বানানোর পদ্ধতি সম্পর্কে। in detail

উপকরণ –
১. পানি- হাফ গ্লাস
২. লেবু- ১ টা
৩. শসা- ১টা
৪. অ্যালো ভেরা পানি- ১ চামচ
৫. আদা- ১ চামচ
৬. পার্সলে শাক- এক মুঠো

এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক ওষুধটি বানানোর পদ্ধতি সম্পর্কে…

১. ব্লেন্ডারে সবকটি উপকরণ দিয়ে ভাল করে মেশান। উপকরণ গুলি মিশে যাওয়ার পর যে মিশ্রনটি পাবেন, সেটিই খেতে হবে প্রতিদিন।

২. প্রথমবার ওষুধটি খাওয়ার পর থেকেই সুফল পেতে শুরু করবেন। ১ গ্লাস খেলেই দেখবেন ওজন কমতে শুরু দিয়েছে। তাই তো ওজন হ্রাসের সবথেকে কার্যকরী আয়ুর্বেদিক ওষুধ হিসেবে এটিকে চিহ্নিত করে থাকেন বিশেষজ্ঞরা।

৩. শরীর থেকে সব রকমের ক্ষতিকর উপাদান বের করে দিতে লেবুর রসের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

৪. হজম ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে আদা। surely সেই সঙ্গে শরীরে জমে থাকা চর্বিকে গলিয়ে ফেলতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৫. হজম ক্ষমতা বাড়ানোর পাশপাশি শরীরকে চাঙ্গা রাখতে শসার কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই তো এই ওষুধটি বানাতে শসার এত প্রয়োজন পরে।

৬. পার্সলে এই শাকটিতে প্রচুর পরিমাণে খনিজ এবং অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট রয়েছে। কিন্তু ক্য়ালোরি রয়েছে একেবারে কম। তাই তো এই শাকটি নিয়মিত খেলে ওজন বাড়ার কোনও আশঙ্কাই থাকে না। কিন্তু হজম ক্ষমতা যায় বেড়ে। আর একথা তো আর বলে দিতে হবে না যে, হজম যত ভাল হবে, ওজন কমবে তত তাড়াতাড়ি। next

৭. চর্বি গলিয়ে দেওয়ার পাশপাশি হজম ক্ষমতার উন্নতিতে সাহায্য করে অ্যালোভেরা। সাবধান! এই ওষুধটি খাওয়ার সময় বেশি করে জল খাবেন কিন্তু! But কারণ শরীরে জলের মাত্রা কমে গেলে হজম ক্ষমতাও কমতে শুরু করবে। ফলে ওষুধটি খেয়ে কোনও লাভই হবে না।

→ লেখাটি ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *