ঘরোয়া উপায়ে ৯টি বাজে শারীরিক সমস্যার সমাধান করুণ

নাক থেকে রক্ত পড়া, সর্দি-কাশি, ছোটোখাটো পোড়া, মুখের দুর্গন্ধ, ঘামের গন্ধ, পোকামাকড়ের জ্বালাময়ী কামড় ইত্যাদি ধরণের শারীরিক সমস্যায় হরহামেশাই পড়তে দেখা যায় অনেককেই। এই সাধারণ সমস্যাগুলোর জন্য ডাক্তারের কাছে যান না কেউই। কিন্তু এইসকল সমস্যা নিয়ে অস্বস্তিতে থাকেন।

কিন্তু খুব সহজেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে মাত্র ৫ মিনিট সময় ব্যয় করে এই ধরণের সাধারণ শারীরিক সমস্যাগুলো থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। চলুন দেখে নেয়া যাক এই সাধারণ সমস্যাগুলোর সহজ সমাধান।

১/ নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধের সমস্যা
নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধের সব চাইতে সহজ সমাধান হচ্ছে পুদিনা/তুলসি/ধনে পাতা চিবানো। এছাড়াও লবঙ্গ, দারুচিনি এবং কমলালেবুর খোসা চিবিয়ে খেলেও নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধের সমস্যা দূর হয়।

২/ নাক থেকে রক্ত পড়া-
অনেক সময়েই নাকে কিছুর গুঁতো লেগে গেলে নাক থেকে রক্ত পড়া শুরু হয়। এই রক্ত পড়া তাৎক্ষণিক বন্ধ করতে চাইলে বাদামী রঙের মোটা কাগজ (বড় আকারের খাম তৈরিতে বা সুপারশপে বাজারের ব্যাগগুলোতে যে কাগজ ব্যবহার হয়) ছিঁড়ে নিয়ে মুখের ভেতরে ওপরের তালুতে দিয়ে জিভ দিয়ে চেপে ধরে থাকুন। রক্ত পর বন্ধ হয়ে যাবে।

৩/ ফোসকা পড়ার সমস্যা-
নতুন জুতো পড়লে কিংবা রান্নার সময় তেল ছিটে পড়লে চামড়ায় ফোসকা পড়তে দেখা যায়। এর জ্বলুনি থেকে রক্ষা পেটে ফোসকা পড়া অংশে টুথপেস্ট লাগিয়ে নিন। এছাড়া হোমিওপ্যাথিক ঔষধ হ্যামোমেল ভারজিনিয়ানা তুলোয় লাগিয়ে দিনে ৪ বার ব্যবহার করলে দ্রুত সেরে উঠবে।

৪/ গায়ের দুর্গন্ধ
ঘেমে গেলে অনেকের গায়ে বিশ্রী দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। এর মূল কারণ হচ্ছে মরা কোষে রোমকূপ বন্ধ হয়ে থাকা। তাই গোসলের পূর্বে শুকনো গায়ে বডি ব্রাশ চালিয়ে পুরো দেহের মরা কোষ দূর করে নেয়া ভালো। এবং গোসলের পানিতে কমলা লেবুর খোসা ডুবিয়ে রেখে গোসল করলে গায়ের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৫/ হাতে পায়ের জয়েন্টে ব্যথার সমস্যা-
অনেক সময় হাড়ের জয়েন্টগুলোতে প্রচণ্ড রকমের ব্যথা অনুভূত হয়। এই ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে হোমিওপ্যাথি ঔষধ আরনিকা ব্যবহার করুন। একটি তুলোর বলে এই ঔষধ চুবিয়ে জয়েন্টে বুলিয়ে নিন। ব্যথা দ্রুত দূর হবে।

৬/ খুশকির সমস্যা
খুশকি একটি অস্বস্তিকর সমস্যা। এই সমস্যা অনেক সময় লজ্জায় ফেলে দিয়ে থাকে। খুশকির সমস্যা থেকে দূরে থাকতে চাইলে মাথা ও চুল সব সময় পরিষ্কার রাখা উচিৎ। শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহারের পর ১ কাপ ভিনেগার মাথার ত্বকে ও চুলে লাগিয়ে নিন ভালো করে। ৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ভালো করে চুল ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পাবেন।

৭/ ঠোঁট ফাটার সমস্যা
অনেকের দেহে পানিশূন্যতার সমস্যা হলে সারাবছরই ঠোঁট ফেটে থাকে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সাথে রাখুন অলিভ অয়েল। কিছুক্ষণ পর পর অলিভ অয়েল দিয়ে ঠোঁট ভিজিয়ে নেবেন। এবং দেহকে পানিশূন্যতা থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করুন।

৮/ পোকামাকড়ের কামড়-
পোকামাকড়ের কামড়ের জ্বলুনি ও অ্যালার্জি থেকে তাৎক্ষণিক রক্ষা পেতে চাইলে একটুকরো পেঁয়াজ কেটে নিয়ে কামড়ের অংশে ঘষুন। পেঁয়াজের সালফার দ্রুত জ্বলুনি কমিয়ে দেবে ও অ্যালার্জির হাত থেকে রক্ষা করবে।

৯/ হেঁচকির সমস্যা-
এক গ্লাসে পানি নিয়ে একটি স্ট্র(পাইপ) নিন। এবার দুই হাতের বুড়ো আঙুলের পরের আঙুল দিয়ে দুই কানের নিচে চোয়াল এবং গলার যে জয়েন্ত রয়েছে তাতে চাপ দিয়ে ধরে স্ট্র দিয়ে পানি পান করতে থাকুন। দেখবেন হেঁচকি ওঠা বন্ধ হয়ে গিয়েছে।
সূত্র: প্রিয় লাইফ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *