চুলকানি, খুশকি ও নতুন চুল গজাতে নিমের অয়েলের ব্যবহার!

নিমের ঔষধি গুণ সম্পর্কে কম বেশি আমরা সবাই জানি। মাথার ত্বকের র‍্যাশ, চুলকানি, খুশকি ও নতুন চুল গজাতে নিমের তেল বেশ কার্যকর। তবে অনেকেই নিমের অয়েল মাথার তালুতে সরাসরি ব্যবহার করে থাকেন। নিমের তেল সরাসরি মাথার তালুতে ব্যবহার না করে প্যাকের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করুন, এতে আরও ভাল ফল পাওয়া যাবে। এমন কিছু নিমের তেলের হেয়ার প্যাক নিয়ে আজকের এই ফিচার।shajghor_the-new-hair-to-grow-neem-oil১। নতুন চুল গজাতে –
আধা কাপ নারকেল তেল, এক টেবিল চামচ নিম অয়েল এবং দশ ফোঁটা বাদাম তেল। সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ অল্প আঁচে দুই মিনিট জ্বাল দিন। কুসুম গরম অবস্থায় এটি মাথার তালুতে ম্যাসাজ করে লাগান। এটি চুলে এক ঘন্টায় রাখুন। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।

২। খুশকি দূর করতে –
এক টেবিল চামচ আমলকির গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ মেথির গুঁড়ো, দশ ফোঁটা নিমের অয়েল এবং এক চা চামচ লেবুর রস একসাথে মেশান। মিশ্রণটি মাথায় ভাল করে লাগিয়ে রাখুন। এক ঘন্টা পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করুন। এটি নিয়মিত ব্যবহারে চুল থেকে খুশকি দূর হয়ে যাবে।

৩। উকুন দূর করতে –
উকুনের যন্ত্রণা বেশ বিরক্তকর। এই সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে নিমের অয়েল। মাথায় নিমের অয়েল ম্যাসাজ করুন। এভাবে সারারাত থাকুন। পরের দিন সকালে একটি চিকন দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ান। দেখবেন উকুন চলে আসছে। নিমের তেল মাথার তালুতে কোন বিরুপ প্রভাব ফেলবে না।

৪। মাথার তালু চুলকানি রোধে –
এক টেবিল চামচ অলিভ অয়েলের সাথে চার পাঁচ ফোঁটা নিমের তেল মেশান। এই তেলের মিশ্রণটি মাথার তালুতে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন। ১৫-২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ফেলুন।

৪। চুল কন্ডিশন করতে –
একটি ডিমের সাদা অংশের সাথে বিশ ফোঁটা নিমের অয়েল ভাল করে মেশান। এই মিশ্রণটি চুলে ব্যবহার করুন। ঘন্টাখানিক পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি চুল স্বাস্থ্যজ্বল ঝলমলে করে তোলে।

⇒ ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *