চুল পড়ার টেনশন থেকে চিরতরে মুক্তির উপায়

যে হারে রোজ চুল উঠছে তাতে মনে হচ্ছে অল্প দিনেই মাথাটা এক্কেবারে খালি হয়ে যাবে। কিন্তু বেশি ভেবে কাজ নেই। ডায়েট চার্টের দিকে একটু নজর দিলেই চুলপড়ার টেনশন থেকে চিরতরে মুক্তি পাওয়া যাবে।shajghor_tension hair forever# ডিম –
বায়োটিন আর ভিটামিন সি-এ সমৃদ্ধ ডিম, চুলের বিকাশের ক্ষেত্রে যার জুড়ি মেলা ভার। আর যদি একান্তই খেতে না চান, তাহলে অলিভ অয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে মাথায় লাগালেও উপকার পাবেন৷মাত্র চার চামচ অলিভ অয়েল ডিমের কুসুমের সঙ্গে মিশিয়ে মাথায় লাগালে চুল উজ্জ্বল ও ফুরফুরে হবে৷

# পালংশাক –
আয়রন আর ফোলেটে ভরপুর পালংশাক চুলের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে ভীষণ উপকারি৷যা চুলে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবারহ করে৷রোজ যদি পালংশাক খেতে ইচ্ছে না করে, তবে কুছ পরোয়া নেহি৷মাঝেমধ্যে পালং-এর স্যালাড বানিয়ে তো খেতেই পারেন৷

# ক্যাপসিকাম –
লাল, হলুদ বা সবুজ-রঙ যেরকমই হোক না কেন ভিটামিনে সি তে ভরপুর ক্যাপসিকাম ডায়েটে রাখলে ধীরে ধীরে চুলের জেল্লা ফিরবে বই কী! শরীরে ভিটামিন সী-এর অভাবে চুল শুধু শুশ্কই হয়ে যায় না, প্রতিদিন প্রচণ্ড পরিমাণে ঝরতে থাকে৷

# প্রোটিন –
নিরামিষাশীরা চুলের স্বাস্থ্য ফেরাতে ডায়েটে রাখতে পারেন দানাশস্য৷ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে চলতে পারে মুসুর ডাল, সোয়াবিন, রাজমা, স্টার্চযুক্ত বিনস৷আয়রনে ভরপুর এই খাবারগুলি চুলে আবার আগের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনবে৷

# গাজর-
ভিটামিন আর বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ গাজর যদি প্রতিদিনের ডায়েটে এসময় রাখা যায়, তাহলে শীতের রুক্ষ্ম মরসুমেও আপনার চুল সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করবে৷

No comments

  1. atea ki satto

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *