চুলে তেল দেওয়া ভালো না খারাপ? জেনে রাখুন

সেই আদিযুগ থেকে নারীরা চুলে তেল ব্যবহার করে আসছে। আমরা সবাই জানি, চুল ঘন ও ঝলমলে করতে তেল বেশ কার্যকর। কিন্তু সত্যিই কী তেল চুলের জন্য উপকারী? এ বিষয়ে চুল বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ তুলে ধরা হয়েছে আইডিভা ওয়েবসাইটে।
ভালো না খারাপ?
বেঙ্গালুরুর অ্যাপোলো হসপিটালের ড. কেভি হারিশ বলেন, ‘খারাপ আবহাওয়া, তাপ ও সূর্যের রশ্মির বিকিরণ থেকে চুলকে রক্ষা করে তেল।’ তিনি মনে করেন, ‘তেল হচ্ছে এমন একটি পিচ্ছিল পদার্থ যা ময়লা-ধুলাবালি ও রোদ থেকে প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যকর উপায়ে চুল ভালো রাখে।’ তাই ড. হারিশের মতে, তেল চুলের জন্য খুবই উপকারী।

তেল আসলে চুলে কী করে?
তেল মূলত চুলের আবরণ হিসেবে কাজ করে, যাতে চুল নষ্ট না হয় এবং তেল চুলের গোড়া শক্ত করে। এ ছাড়া চুল ভেঙে যাওয়ার সমস্যারও সমাধান করে তেল’, বললেন চুল বিশেষজ্ঞ জাওয়েদ হাবিব।

বাজারে অনেক ধরনের তেল কিনতে পাওয়া যায়। একেকটি তেল একেক ধরনের চুলের জন্য কার্যকর। এই যেমন- শুষ্ক তুলের জন্য আমন্ড অয়েল উপকারী, আবার নারকেল তেল চুলের রুক্ষতা দূর করতে বেশ কার্যকর। এ ক্ষেত্রে আপনাকে বেছে নিতে হবে কোনটি আপনার চুলের জন্য ভালো।

কীভাবে চুলে তেল ব্যবহার করবেন?
“চুলে তেল দেওয়া কোনো দীর্ঘ বা ব্যয়বহুল পদ্ধতি না। সপ্তাহের যেকোনো একদিন রুটিন করে চুলে তেল দিন যা আপনার জন্য খুব বেশি ঝামেলার হবে না’, বললেন ড. হারিশ। চুলে তেল মেখে সারারাতও রেখে দিতে পারেন আবার শ্যাম্পু করার ৩০ মিনিট আগেও তেল লাগাতে পারেন। দুটি পদ্ধতিই সমান উপকারী।

তেল ব্যবহারের সময় খুব বেশি গরম না করাই ভালো। হালকা গরম অথবা কক্ষ তাপমাত্রায় গরম থাকলে তেল বেশি কার্যকর হয়। ‘অতিরিক্ত গরম তেল মাথার তালুর জন্য ক্ষতিকর এবং এই তেল ব্যবহারে চুলের গোড়া ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাই এটি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

⇒ ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *