চুল পড়া পুরোপুরি বন্ধ করার কার্যকরী ঘরোয়া টিপস

চুলের সমস্যা নেই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। এখনকার মেয়েদের কমবেশি সবারই চুল পড়ে। এমতাবস্থায় পার্লারে গিয়ে চুলের ট্রিটমেন্ট করা বেশ সময় ও ব্যয় সাপেক্ষও। কিন্তু কথায় আছে, যে রাঁধে, সে চুলও বাঁধে। এই কথাকেই সামনে রেখে আজ আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি চটজলদি কিছু যত্ন, যা খুব সহজেই চুল পড়া বন্ধ করবে, চুল ঘন, কালো ও মজবুত করবে।


হাতের খুব কাছের সামান্য কয়েকটা উপাদান দিয়েই আপনি সেরে ফেলতে পারেন আপনার অমূল্য চুলের যত্ন। এ জন্য আপনি তৈরি করতে পারেন নিয়মিত ব্যবহারের জন্য তেল।

যা যা লাগবে –

১। মেহেদি পাতা (৪/৫ মুঠো সমপরিমাণ) ও

২। সরিষার তেল (২৫০ মিলি. সমপরিমাণ)।

প্রণালীঃ

প্রথমে মেহেদি পাতাগুলো ডাল থেকে বেছে আলাদা করে নিন। তারপর একটি পাত্রে পাতাগুলো নিয়ে পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন, যাতে পাতাতে কোনো ময়লা লেগে না থাকে। ধোয়া হয়ে গেলে পানি ঝড়িয়ে নিতে পারেন অথবা কোনো পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে নিতে পারেন।

এরপর একটি পরিষ্কার পাত্রে ২৫০ মিলি. সরিষার তেল নিয়ে চুলায় কম আঁচে দিয়ে দিন। আপনি চাইলে আরও কম পরিমাণে তেল Oil নিতে পারেন। তেলটা হালকা গরম হয়ে গেলে তাতে মেহেদি পাতার কিছু অংশ দিয়ে দিন। তারপর হালকা জ্বাল দিতে থাকুন, যাতে পুড়ে না যায়। যখন তেলে ফেনা উঠে যাবে তখন চুলা থেকে নামিয়ে নিন। কিছুক্ষণ পর আবার চুলায় বসিয়ে দিন। এরপর আস্তে আস্তে বাকি মেহেদি পাতাগুলো তেলে দিয়ে দিন। আগের নিয়মে একই ভাবে তেলে ফেনা উঠে গেলে চুলা থেকে কিছু সময়ের জন্য নামিয়ে রাখুন। এভাবে কিছুক্ষণ করার পর চুলা থেকে একেবারেই নামিয়ে রাখুন।

ঠান্ডা হয়ে গেলে, একটি পাতলা পরিষ্কার কাপড় অথবা ছাঁকনি দিয়ে তেলটা ছেঁকে নিন। তারপর তেলটা কোনো কাঁচের বোতলে ভরে রাখুন। এতে তেল বেশি দিন সংরক্ষণ করা যাবে। চাইলে প্লাস্টিকের বোতলেও রাখতে পারেন। সেক্ষেত্রে তেলের পরিমাণ কম নেয়াই ভালো।

আপনি যদি মেহেদি পাউডার নিতে চান তাহলে পাউডার ১/৩ কাপের সাথে, ১/২ কাপের মতো সরিষার তেল নিয়ে উপরের নিয়মানুযায়ী তেলের সাথে নিয়ে ২৫/৩০ মিনিট জ্বাল দিয়ে, ঠান্ডা করার পর পাতলা কাপড় দিয়ে ছেঁকে ব্যবহার করতে পারবেন।

ব্যবহারবিধিঃ
প্রয়োজন মাফিক তেল নিয়ে আলতো ভাবে চুলের Hair গোড়ায় আর পুরো চুলে দিন। কমপক্ষে তিন ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। শ্যাম্পু করার আগের দিন রাত অবধি রাখতে পারলে আরও বেশি ভালো ফল পাবেন। এভাবে সপ্তাহে ২/৩ বার তেলটি ব্যবহার করুন।

ফলাফলঃ
এক সপ্তাহের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে চুল পড়া hair fall পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে।

টিপসঃ

১। চুল পড়ার সমস্যায় এন্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু কখনই ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে চুলের মারাত্মক ক্ষতি সাধন হয়।

২। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর আপনার চুলের সাথে মানানসই কন্ডিশনার দিন।