চোখের নিচে ফোলা ভাব দূর করার সহজ ২টি পদ্ধতি

চোখের কোল ফুলে যাওয়া সত্যিই বিরক্তিকর। চোখের নিচে যদি ফুলে থাকে এবং ফোলা ফোলা ভাব চলে আসে তাহলে দেখতে একটু খারাপই লাগে। ভাবছেন এই সমস্যা থেকে কীভাবে মুক্তি পাবেন? জেনে নিন খুবই সহজ দুটি সমাধান।চোখের নিচের অংশ ফোলার কারণ –

– ঘুম কম হলে বা ঘুমের সমস্যা থেকে থাকলে চোখের নিচ ফুলে যায়। সুতরাং আপনাকে নিয়ম করে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে।

– অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে চোখের নিচ ফুলে যায় অনেক বেশী।

– অতিরিক্ত লবণাক্ত খাবার খাওয়ার কারণে দেহে পানি বেশী জমতে থাকে। এতে করেও অনেকের চোখের নিচে ফুলে যায়।

– সাইনাসের সমস্যা থাকলে চোখের নিচের ফোলাভাব Swelling under the eyes বেড়ে যায়।

– অতিরিক্ত ধূমপান এবং মদ্যপানের কারণেও চোখের নিচ ফুলে থাকে।

– পরিবারের সদস্যদের যদি এমন সমস্যা থাকে তাহলে সেটি আপনার জেনেটিক্যাল ব্যাপার, আর সে কারণেই আপনার চোখের নিচ ফোলা।

খুবই সহজ দুটি সমাধান –

১/ আলুর রসের ব্যবহার –
‘আলুর রসের অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান চোখের নিচের ফলাভাব এবং সেই সাথে কালচে ভাব দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী’। প্রথমে একটি আলু গ্রেট করে নিয়ে চিপে রস বের করে নিন। এবং এই রস একটু ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে ফেলুন। ঠাণ্ডা আলুর রস তুলোর বলে লাগিয়ে চোখের Eye উপরে দিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। এই ২০ মিনিট রিলাক্স করুন। ২০ মিনিট পর তুলোর বল ফেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। দেখবেন ফোলাভাব অনেকটাই কমে গিয়েছে।

২/ ডিমের ব্যবহার –
ডিম ত্বকের জন্য খুবই কার্যকরী একটি উপাদান। বিশেষ করে ত্বকের টানটান ভাব ধরে রাখতে ডিমের সাদা অংশের জুড়ি নেই। একারণেই চোখের নিচের ফোলাভাব দূর করতে ডিমের Egg সাদা অংশ কার্যকরী। একটি ডিম ভেঙে কুসুম আলাদা করে নিন। এরপর ডিমের সাদা অংশ ভালো করে ফেটিয়ে নিন। আঙুলের ডগা দিয়ে এই সাদা অংশ চোখের নিচে লাগান তবে সাবধান থাকবেন যেনো চোখের ভেতরে না যায়। সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন চোখ Eye বন্ধ করে। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। চোখের ফোলাভাব খুব সহজেই দূর হয়ে যাবে।

যদি এর চাইতেও সহজ পদ্ধতি চান, তাহলে দুটো টেবিল চামচ ডীপ ফ্রিজে Deep fridge রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। এরপর এই চামচ চোখের উপরে ধরে রাখুন ১০ মিনিট, এতেও ভালো ফলাফল পাবেন’।

লেখাঃ স্কিন এবং হেয়ার এক্সপার্ট তানিজা
সুত্রঃ প্রিয় লাইফ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *