জমকালো পার্টি/ঘরোয়া উৎসবে চুলের সাজ

মেয়েরা সাজতে অনেক পছন্দ করেন এটা সত্যি কথা। বিভিন্ন পার্টিতে বা প্রোগ্রামে তারা নিজেদেও করে তুলতে চান সবচেয়ে আকর্ষণীয়। এর জন্য চলে নানা আয়োজন। তবে দেখা গেছে যে সাজগোজের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ঝামেলা পোহাতে হয় চুল বাঁধার ক্ষেত্রে। মুখের সাজগোজের পর চুল বাঁধতে গিয়ে অনেকেই বিপদে পড়েছেন। তবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান বা উপলক্ষের জন্য বিভিন্নভাবে চুল বাঁধা যেতে পারে। এক্ষেত্রে লক্ষ্য করার বিষয় আপনি কী ধরনের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছেন। জমকালো পার্টির সাজ এক রকম হবে, ঘরোয়া উৎসবের সাজ হবে একেবারেই অন্যরকম। আসুন জানি এখন চুলের ফ্যাশনে কী চলছে।

পার্টিতে চুলের সাজ:
আপনি কোন্ ধরনের পার্টিতে যাচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করবে চুলের সাজ কেমন হবে।

জমকালো অথবা বিয়ের পার্টিতে আপনার পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে সাজিয়ে নিন আপনার চুল। শাড়ির সঙ্গে মানিয়ে আপনি করতে পারেন খোঁপা।

এছাড়া চুল যে বাঁধতেই হবে এমন কোনো কথা নেই। সামনের দিকে হালকা ফুলিয়ে চুল পেছনে ছেড়ে দিতে পারেন। সালোয়ার-কামিজের সঙ্গেও ছেড়ে রাখতে পারেন চুল। সেক্ষেত্রে চুলের একটি সুন্দর কাট দিয়ে নিন। আপনার চুলের সঙ্গে রঙিন হেয়ার এক্সটেনশন করে বদলে দিতে পারেন আপনার চেহারা। তবে এক্ষেত্রে পোশাকের রঙের দিকটি মাথায় রাখুন।

ফতুয়া ও জিন্সের সঙ্গে খোঁপা মানানসই হবে না। তাই পাশ্চাত্য পোশাকের সঙ্গে খুলে দিন চুল অথবা সামনের দিকে ব্যাককম্ব করে একটু ফুলিয়ে দিতে পারেন। বড় বা মাঝারি চুলও সম্ভব হলে ছেড়ে দিতে পারেন। চুলগুলো বেঁধে নিন হাফনট স্টাইলে। অর্ধেক চুলে হাফনট করে তাতে শক্ত করে আটকে দিন ড্রেসের রঙের সঙ্গে মানানসই পাথর বসানো পাঞ্চ ক্লিপ দিয়ে।

সাধারণ হাতখোঁপা করে তাতে ব্যবহার করতে পারেন রুপার তৈরি কাঁটা। এটি চুলের সাজে আভিজাত্য ফুটিয়ে তোলে। এছাড়া লম্বা চুলে বেণী করে তাতে লাগানো যেতে পারে বাহারি রঙের ফুল।

ঘরোয়া উৎসবে চুলের সাজ:
যদি ঘরোয়া কোনো উৎসব থাকে তবে ছোট বা মাঝারি চুল হলে সাইডে সিঁথি করে বাকি চুল ছেড়ে দিন। চাইলে কানের গোড়ায় গুঁজতে পারেন বর্ষার কোনো ফুল।

এছাড়া মাথার সামনের কিছু চুল ছোট পাঞ্চ ক্লিপের সাহায্যে হালকা পাফ করে বাঁধতে পারেন। তারপর বাকি চুল একটু উঠিয়ে হাত খোঁপা করে তাতে দিতে পারেন সুদৃশ্য কোনো কাঁটা।

একটু আলাদা সাজ চাইলে করতে পারেন ফ্রেঞ্চ বেণী অথবা পনিটেল।

আর যদি একটু ভিন্ন ধরনের কোনো স্টাইল করতে চান সে ক্ষেত্রে কপালের ওপর কিছু চুল ছেড়ে রেখে বাকি চুল ফুলিয়ে নিন। এবারে কপালের উপরের চুল এক সাইড করে নিয়ে দুই পাশ থেকে অল্প অল্প চুল নিয়ে ফ্রেঞ্চ বেণীর মতো করে আনুন কানের গোড়া পর্যন্ত। এবারে বাকি চুল পেছনে ক্লিপ দিয়ে আটকে নিন। চাইলে এবারে পেছনের চুলও আপনি খোঁপা বা বেণী করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *