দ্রুত ফর্সা হওয়ার ক্রিম ব্যবহারে ত্বকের কী কী ক্ষতি হয়? জেনে নিন!

দ্রুত ফর্সা হওয়ার ক্রিম গায়ের রং-টা যদি আর একটু ফর্সা হত, এমন সুপ্ত বাসনা কম-বেশি সবারই আছে। এ কারণে গত কয়েক দশকে ফর্সা হওয়া ক্রিমের চাহিদাও বেড়ে গেছে। কিন্তু আপনি জানেন কী? এগুলো ত্বকের জন্য ঠিক কতটা ভালো?ফর্সা হাওয়ার ক্রিম ব্যবহার ত্বকের নানা সমস্যার জন্য দায়ী। তাই ত্বকের সুরক্ষায় নিয়ম মেনে রং ফর্সাকারী এই ক্রিমগুলো ব্যবহার করা উচিত।

দ্রুত ফর্সা হওয়ার ক্রিম ব্যবহারে ত্বকের যে ধরনের ক্ষতি হয় – in detail

স্কিন ক্যান্সারের আশঙ্কা বাড়ে –
ফর্সা হওয়ার ক্রিমে হাইড্রোকুইনান এবং মারকিউর নামে এই দুটি ক্যামিকেল ব্যবহার করা উচিত। কিন্তু বাজারের বেশিরভাগ ক্রিমেই this এই দুই উপাদানের পাশাপাশি অনিয়ন্ত্রিতভাবে স্টেরোয়েড এবং ট্রেটিনোইন নামে দুটি উপাদান মেশান হয়, যা কার্সিজেনিক। or অর্থাৎ এই দুটি উপাদানের থেকে স্কিন ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সেই সঙ্গে লিভারের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।

হাইপারপিগমেন্টটেশন –
যেসব দ্রুত ফর্সা হওয়ার ক্রিমে ২ শতাংশের বেশি হাইড্রোকুইনান থাকে, সেসব ক্রিম টানা ৩ মাস মুখে লাগালে মুখ ফর্সা হওয়ার পরিবর্তে কালো হয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে মুখের পাশাপাশি সারা শরীরে হাইপারপিগমেন্টটেশনের মতো ত্বকের রোগ হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

চামড়া শক্ত হয়ে যায় –
একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে নানা ক্যামিকেল দিয়ে তৈরি এসব ক্রিম মুখে লাগালে ত্বক তার সৌন্দর্য হারাতে শুরু করে। সেই সঙ্গে চামড়া মোটা হয়ে যাওয়া, স্ট্রেচ মার্ক সহ ত্বকের নানা সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

চুলকানি –
হাইড্রাকুউনানের প্রভাবে চুলকানি, কালো ছোপ, মুখ লাল হয়ে যাওয়া, ড্রাই স্কিন এবং প্রচন্ড জ্বালা হাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ত্বকের সংক্রমণ বেড়ে যায় –
২০০৩ সালে ব্রিটিশ জার্নাল অব ডার্মাটোলজিতে প্রকাশিত এক রিপোর্ট অনুসারে, যারা ব্রণ, ডার্মাটাইটিস এবং একজিমার মতো ত্বকের রোগে ভুগছেন তারা যদি ফর্সা হাওয়ার ক্রিম ব্যবহার করেন, তাহলে এসব রোগের প্রকোপ আরও বৃদ্ধি পায়। ফলে মুখের সৌন্দর্য বাড়ার পরিবর্তে চোখে পরার মতো কমে যেতে শুরু করে।

নানা রোগের আশঙ্কা বাড়ে –
যেসব রং ফর্সাকারী ক্রিমে মার্কারি রয়েছে, এমন ক্রিম বেশি ব্যবহারে কিডনির মারাত্মক ক্ষতি হয়। সেই সঙ্গে চুলকানি, ত্বকের রং খারাপ হয়ে যাওয়া এবং সংক্রমণের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

→ লেখাটি ভালো লাগলে প্লিজ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন শেয়ার করতে √ এখানে ক্লিক করুন

তথ্যসূত্র: বোল্ডস্কাই ডট কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *