নারীদের বয়স লুকানোর কারণ জেনে নিন!

বয়সের প্রশ্নে সঠিক উত্তর দিতে নারীরা সব সময়ই থাকে পিছিয়ে। নারীরা নিজের সঠিক বয়স বলতে চান না। কোনো কারণে যদি বলেও ফেলেন তবে দেখা যায় তা পুরোপুরি সঠিক নয়। কিন্তু কেন নারীরা বয়স লুকান? এই রহস্যের সঠিক উত্তর হয়তো স্বয়ং নারীর কাছেও মেলে না সব সময়। তাই আসুন জেনে নেয়া যাক, নারীর বয়স লুকানোর কয়েকটি মজার রহস্য।

সবার কাছে প্রাধান্য পেতেঃ
নিজের বন্ধু-বান্ধব বা দূরের কাছে কম বয়সেও নিজের কর্ম দক্ষতা দেখাতে পারলে অনেক বেশি প্রাধান্য পাওয়া যায়। সবাই একটু আদুরে দৃষ্টিতেই তাকে সমাদর করে। এই সমাদর পেতে কোনো নারী রাজি নয়।

সঙ্গীর মন পেতেঃ
পুরুষ সঙ্গীর মন পাওয়ার ইচ্ছা সব নারীরই গোপন বাসনা। আর তাই তারা ভাবেন নিজের বয়স কমিয়ে বললে পুরুষের মন পাওয়া বেশ সহজ হবে। কারণ নিজের বয়সের ছোট কারো প্রতি সাবরই আদর-স্নেহ আসে বেশি। আর তাই সেই স্নেহকে হাতছাড়া করতে চান না কোনো নারী।

পাত্রী হিসেবে দাম পেতেঃ
কম বয়সী সুন্দরী নারী পাত্রী হিসেবে বিয়ের বাজারে অনেক দাম। শাশুড়ির ননদের কাছেও আদরের। তাছাড়া স্বয়ং পাত্রও বেশ আহ্লাদিত থাকেন কম বয়সী বউ পেয়ে। ছোটদের মতো অপরিপক্ক আচরণও তাদের কাছে খেলা মনে হয়। আর তাই নারীরা কখনো তার আসল বয়স বলতে রাজি নন।

ভ্রান্ত ধারনাঃ
আমাদের সমাজে একটি প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণা থেকেই মেয়েরা বয়স লুকাতে শেখে। তাদেরকে বোঝানো হয় বয়স ঠিক বললে সবার কাছে প্রাধান্য থাকবে না। ফলে তারা তাদের সঠিক বয়সটি কাউকে বলতে চায় না।

মানসিক শান্তিঃ
সাবর কাছেই কম বয়স বলে নিজের পরিচিতি ধরে রেখে অনেকেই স্বস্তি পান। নিজেকে দীর্ঘদিন যুবতী মনে হয়। শুধু তাই নয়, বয়স ধরে রাখতে নানা ধরণের ব্যয়াম, রূপচর্চা, খাবার গ্রহণ করে থকেন। এতে তার সৌন্দর্যও টিকে থাকে অনেকদিন।

চাকরি পেতেঃ
চাকরি পাওয়ার জন্য বয়সের নির্ধারিত সীমা থাকায় অনেক মেয়ে বয়স লুকিয়ে থাকেন। চাকরি পাওয়ার আশায় অনেক পুরুষও একই কাজ করে থাকেন।