পানীয় পান করে দ্রুত পেটের মেদ কমান

কেউ যদি আপনাকে বলে পেটের চর্বি কমানোর জন্য কোণ ব্যায়াম বা পরিশ্রম করতে হবে না। অবশ্যই আপনি খুশিতে লাফিয়ে উঠবেন। তাহলে চিনে নিন ৪ টি জাদুকরী পানীয়কে। রোজ এক গ্লাস করে পান করুন, পেটের বিচ্ছিরি মেদ একেবারেই দূর হবে। চমৎকার বিষয় হচ্ছে, ৪টি পানীয় কোনটাই দামী নয় এবং খেতেও সুস্বাদু!

১/ বরফ শীতল পানি –
সামান্য বরফ শীতল পানি আপনার পেটের মেদ কমাতে দারুণ কাজ করবে। ঠাণ্ডা পানি আপনার মেটাবোলিজম বৃদ্ধি করে ও অধিক ক্যালোরি পোড়াতে সাহায্য করে। ভালো ফলাফলের জন্য দৈনিক অন্তত ১৬ আউন্স ঠাণ্ডা পানি পান করবেন।

২/ ডাবের পানি –
ফ্রেশ ডাবের পানির চাইতে অসাধারণ পানীয় আর কিছুই হতে পারে না। এটাতে উপস্থিত থাকে প্রচুর মিনারেল ও ইলেক্ট্রোলাইট। যত বেশি ইলেক্ট্রোলাইট প্রবেশ করবে শরীরে, আপনি তত ঝরঝরে ও এনারজেটিক অনুভব করবে। আর উচ্চ মাত্রার ইলেক্ট্রোলাইট মেটাবোলিজম বৃদ্ধিতেও দারুণ সহায়ক সব মিলিয়ে পেটের মেদ তথা ওজন কমবে দ্রুত। বেশি নয়, প্রতিদিন মাত্র ১ গ্লাস ডাবের পানি পান করুন।

৩/ স্কিম মিল্ক বা ননী ছাড়া দুধ –
সুপারশপে খুজলেই পাবেন স্কিমড মিল্ক বা ননী তোলা দুধ। এবং দাম খুব বেশি নয়। মেদ কমিয়ে ঝরঝরে হতে চাইলে রোজ পান করুন এক গ্লাস স্কিমড মিল্ক। এই দুধ আপনার শরীরের ফ্যাট গুলোকে ভাঙতে অনুপ্রাণিত করে, ফ্যাট জমতেও দেয়না শরীরে। অনেক পুষ্টিবিদ বলেন যে স্কিমড মিল্ক নিয়মিত পানে ৭০% ভাগ পর্যন্ত অধিক ফ্যাট ঝরানো সম্ভব (যারা দুধ পান করেন না, তাঁদের তুলনায়)।

৪/ কালো ও সবুজ চা –
গ্রিন টি যে মেটাবোলিজম বৃদ্ধি করতে দারুণ সহায়ক, এটা সকলেই জানেন। তবে কালো চাও কিন্তু কম যায় না। তবে হ্যাঁ, পান করতে হব দুধ ও চিনি ছাড়া। যারা স্লিম হতে চান, তাঁদের জন্য এটা দারুণ পানীয়। ৪৩% পর্যন্ত বেশি মেদ ঝরাতে পারবেন দৈনিক মাত্র দুই কাপ কালো বা সবুজ চা পান করে!
সূত্র- ইন্টারনেট

__শেয়ার করতে ভুলবেন না__

One comment

  1. Wow!!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *