পিরিয়ড অবস্থায় স্ত্রীর সাথে সহবাস নিয়ে ইসলাম কী বলে?

নারীর ঋতুস্রাবের রক্ত বন্ধ হওয়া ও তার গোসল করার আগ পর্যন্ত সহবাস নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকে। কারণ, আল্লাহ বলেছেন, তারা পবিত্র না হওয়া পর্যন্ত তাদের নিকটবর্তী হয়ো না। অতঃপর যখন তারা পবিত্র হবে তখন তাদের নিকট আস, যেভাবে আল্লাহ তোমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন। [সূরা আল-বাকারা, আয়াত: ২২২]আল্লাহ তায়ালা বলেন , আর তারা তোমাকে হায়েয সম্পর্কে প্রশ্ন করে। বল, তা অপরিচ্ছন্নতা। সুতরাং তোমরা হায়েয কালে স্ত্রীদের থেকে দূরে থাক এবং তারা পবিত্র না হওয়া পর্যন্ত তাদের নিকটবর্তী হয়ো না। অতঃপর যখন তারা পবিত্র হবে তখন তাদের নিকট আস, যেভাবে আল্লাহ তোমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন। নিশ্চয় আল্লাহ তওবাকারীদের ভালোবাসেন এবং ভালোবাসেন অধিক পবিত্রতা অর্জনকারীদের। [সূরা আল-বাকারা, আয়াত: ২২২]

নারীর রক্ত বন্ধ হওয়া ও তার গোসল করার আগ পর্যন্ত সহবাস নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকে। কারণ, আল্লাহ বলেছেন, তারা পবিত্র না হওয়া পর্যন্ত তাদের নিকটবর্তী হয়ো না। অতঃপর যখন তারা পবিত্র হবে তখন তাদের নিকট আস, যেভাবে আল্লাহ তোমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন। [সূরা আল-বাকারা, আয়াত: ২২২]

ঋতু অবস্থায় স্বামী স্ত্রীর সামনের যৌনাঙ্গ ব্যতীত যেভাবে ইচ্ছা তার থেকে উপকৃত হবে। কারণ, নবী [সাঃ] বলেছেন, সহবাস ব্যতীত সব কিছু কর।

ছবিটি ইন্টারনেট হতে সংগৃহীত