পেঁয়াজের সাতটি গুণ, যা হয়তো আপনি জানেন না


মাছে-ভাতে বাঙালির রান্না ঘরে পেঁয়াজ না ঢুকলে, আমিষ যে পূর্ণতা পায় না, না বললেও চলে। জিরে বাটা দিয়ে মাছের ঝোল তো আর রোজ রোজ রোচে না। মাছের কালিয়া থেকে মাটন কষা বা ডিম কারি, পেঁয়াজ ছাড়া চলে নাকি! কিন্তু, এই রান্না ঘরের বাইরেও পেঁয়াজের আরও অনেক গুণ আছে। সেই অজানা গুণের ‘সাত গুন’ তুলে ধরা হল, যা শুনে আপনি বিস্মিত হবেন।

➡ পিঁপড়ের যমঃ
রান্নাঘরে অনেক সময় আমাদের পিঁপড়ের উত্‍পাত সহয্ করতে হয়। কী ভাবে পিঁপড়ে তাড়াবেন, ভেবে পান না। লক্ষ্মণরেখা টেনে, এটাসেটা করে, পিঁপড়ে তাড়াতে হয়। এতসব আয়োজন না করেও, সহজেই পিঁপড়ে তাড়াতে পারেন। হাতের কাছেই আছে মুশকিল আসান। পেঁয়াজ কুঁচি করে কেটে, খোলা পাত্রে রেখে দিন। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। সুড়সুড় করে পিঁপড়েরা পালাবে।

➡ কানের কাছে মাছির ভনভনানিঃ
অনেক সময় কোত্থেকে অযাচিত ভাবে ঘরে মাছি ঢুকে বিরক্তি করে না? যত তাড়ানোর চেষ্টা করেন, ঘুরে ফিরে আবার এক জায়গায়। সঙ্গে সন্ধে হলে, মশার উত্‍‌পাত। কিছুই না, খুব যদি বিরক্ত করে, গায়ে একটু কাটা পেঁয়াজ ঘষে নিন। বা, কোনও কাপড়ের টুকরোয় পেঁয়াজের রস মাখিয়ে ফেলে রাখুন। মাছি পালাবে, মশাও থাকবে না।

➡ পুড়ে গেলে পেঁয়াজঃ
পেঁয়াজের অ্যান্টি-ব্যাক্টেরিয়াল গুণ আমাদের অজানা নয়। কোনও পোড়ার ক্ষত যাতে সংক্রামিত হয়ে না পড়ে, তার জন্য পেঁয়াজ বাটা লাগাতে পারেন। তাতে পোড়ার জ্বালাও কমবে। আবার একই সঙ্গে সংক্রমণও ঠেকানো যাবে।

➡ত্বকে কালো দাগঃ
অনেক সময় মুখে কালো ছোপ পড়ে। শরীরের অন্যত্রও ত্বকে কালো কালো ছোপ দেখা যায়। যা বিব্রত করে তোলার মতোই। কেন এমন হচ্ছে, তার জন্য ডাক্তার তো দেখাবেনই। কিন্তু, পাশাপাশি ঘরোয়া উপায়ে পেঁয়াজ দিয়েও চিকিত্‍সা করতে পারেন। হলুদবাটার পেঁয়াজের রস ভালো করে মিশিয়ে সেই মিশ্রণ ওই কালো ছোপে লাগান। এ ভাবে কিছু দিন ব্যবহার করলে, মুখের কালো দাগ দূর হবে।

➡ চুল পড়ছে?
চুলে চিরুনি দিলেন, মন খারাপ? গোছা গোছা চুল উঠছে? অনেক কিছু করেও চুল-ঝরা ঠেকাতে পারছেন না? অতশত না ভেবে, পেঁয়াজ ব্যবহার করুন। তেমন কিছুই না, পেঁয়াজবাটার রস মাথায়া মাখার যে কোনও তেলের সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। সেই তেলের মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। শুধু চুল পড়া বন্ধই হবে না, মাথার খুশকিও কমবে।

➡ অকাল বার্ধক্যঃ
আয়নার সামনে দাঁড়ালে মনে হচ্ছে বুড়িয়ে যাচ্ছেন? বলিরেখা দূর করতে এটা-সেটা মুখে মাখছেন? পেঁয়াজে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ছাড়াও রয়েছে ভিটামিন। যা, আকাল বার্ধক্য ঠেকায়। তা ছাড়া, ক্ষতিকারক আলট্রা ভায়োলেট রশ্মির হাত থেকেও ত্বককে বাঁচায়।

➡ জেল্লা বাড়াতেঃ
বাড়িতে ধাতব কিছু জেল্লা হারিয়েছে? জানেন কি কী ভাবে জেল্লা ফেরাতে পারেন। পেঁয়াজবাটার সঙ্গে সমপরিমাণ জল মিশিয়ে, ভিজে কাপড় দিয়ে ভালো করে ঘষুন। পরিষ্কার তো হবেই, ফিরবে ধাতব জেল্লাও।

সূত্রঃ ইন্ডিয়া টাইমস