প্রতিদিন মেকআপ ব্যবহারের ৭টি ক্ষতিকর দিক জেনে নিন

মেকআপ প্রতিটি মেয়ের নিত্যদিনের সঙ্গী। বিয়ে হোক বা পার্টি বা অফিস প্রতিদিন একটু না একটু মেকআপ করার প্রয়োজন পড়ে। আপনি জানেন কি এই মেকআপ আপনার ত্বকের কী ক্ষতি করছে? প্রতিদিন ফাউন্ডেশন, মাশকরা অথবা লিপস্টিক ব্যবহারে আপনার ত্বক প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলছে। মূলত মেকআপের ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থের কারণে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে।


১। দীর্ঘস্থায়ী বলিরেখা –
মেকআপে থাকা রঞ্জক এবং অন্যান্য পদার্থতে পরিবেশের ব্যাকটেরিয়া ও অন্যান্য উপাদান মিশে যায়। এই মেকআপ দীর্ঘক্ষন ত্বকে থাকার কারণে ত্বকে ব্রণে দেখা দেয়। এছাড়া এটি নতুন কোষ গঠনে বাঁধা প্রদান করে ত্বকে স্থায়ী বলিরেখা ফেলে দিয়ে থাকে।

২। ত্বকের ছিদ্র বড় করে দেওয়া –
প্রতিদিন মেকআপ makeup করার আরেকটি ক্ষতিকর দিক হল ত্বকের ছিদ্র বড় করে দেয়। মেকআপের অবশিষ্টাংশ ত্বকের ভেতরে থেকে যায়। যা পরবর্তীতে ত্বকে ব্যাকটেরিয়া, জীবাণুর উৎপাদন করে থাকে। এই ব্যাকটেরিয়া ধীরে ধীরে ত্বকের ছিদ্র বড় করে তোলে।

৩।  চোখের ক্ষতি –
প্রতিদিন চোখে মেকআপ ব্যবহারের ফলে চোখে ইনফেকশন হয়ে থাকে। চোখ চুলকানি, চোখ লাল হওয়া, চোখ জ্বালাপোড়া সহ নানা সমস্যা হতে পারে। মাশকারায় এমন এক প্রকারের ব্যাকটেরিয়া থাকে যা কারণে অন্ধ হয়ে যেতে পারেন আপনি!

৪। ঠোঁট শুষ্ক এবং কালো হয়ে যাওয়া –
সাধারণত মেয়েরা সারাদিন ঠোঁটে লিপস্টিক লাগিয়ে থাকেন। এটি আপনার ঠোঁটকে শুষ্ক করে তোলে। দীর্ঘক্ষণ লিপস্টিক লাগিয়ে রাখার কারণে ঠোঁট তাঁর প্রাকৃতিক রং হারিয়ে ফেলে।

৫। চোখের চারপাশে বলিরেখা –
প্রতিদিন ফাউন্ডেশন foundation ব্যবহারে আপনার ত্বকে বলিরেখা পড়ে থাকে। মুখের অন্যান্য স্থানে বলিরেখা ফুটে উঠার আগে চোখের চারপাশে বলিরেখা আগে দেখা দেয়।

৬। মাথাব্যথা –
বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে যে মেকআপের রাসায়নিক পদার্থ এর সাথে মাথা ব্যথার সম্পর্ক রয়েছে। গাল এবং কপালে মেকআপের প্রলেপ মাথা ব্যথা সৃষ্টি করে থাকে। হঠাৎ করে মাথাব্যথায় আক্রান্ত হলে অবাক হবেন না। আপনার অতিরিক্ত মেকআপ এর জন্য দায়ী।

৭। ত্বকের নমনীয়তা হারানো –
মেকআপ makeup ত্বকের টিস্যুর ক্ষতি করে থাকে। যার কারণে ত্বক তার নমনীয়তা হারিয়ে ফেলে। যার কারণে ত্বকে বয়সে ছাপ দ্রুত পড়ে যায়।

বিয়ে বা বিশেষ কোন অনুষ্ঠান ছাড়া মেকআপ করা থেকে বিরত থাকুন। মেকআপ সাময়িকভাবে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে কিন্তু দীর্ঘস্থায়ীভাবে ত্বকের ক্ষতি করে দেবে।

তথ্যসুত্রঃ প্রিয় লাইফ