প্রসাধন সামগ্রী কতদিন ব্যবহার করা নিরাপদ

প্রত্যেক প্রসাধন সামগ্রীর গায়েই উত্তীর্ণ হবার তারিখ লেখা থাকে। কিন্তু আপনি জানেন কি, এই মেয়াদ উত্তীর্ণ হবার আগেই অনেক প্রসাধনের ব্যবহারই হয়ে পরে অনিরাপদ? শুধু মেয়াদ উত্তীর্ণ তারিখ জানলেই হবে না, মুখ খোলার পর কোন প্রসাধন কতদিন ব্যবহার করা নিরাপদ, জানতে হবে সেটাও।

যেমন ধরুন, একটি লিপস্টিক কিনলেন যার মেয়াদ ফুরাবে ৩ বছর পর। কিন্তু তার মানে কি এই যে লিপস্টিকটি ৩ বছর যাবত ব্যবহার করলে কোন অসুবিধা হবে না? অবশ্যই হবে!

প্রসাধনের মুখ খোলার পর একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত সেটা ব্যবহার করা নিরাপদ। আসুন জেনে নেই বিভিন্ন প্রসাধনের আয়ু সম্পর্কে।

# চোখের জন্য যেসব মেক-আপ ব্যবহার করা হয় তা সবচেয়ে তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। যেমন- মাসকারা বা আই লাইনার সিল খোলার ৩ মাসের মধ্যে নষ্ট হতে থাকে। মাসকারা জমে গলে কখনও পানি মিশিয়ে সেটা ব্যবহার করবেন না। এতে ব্যাক্টেরিয়ার জন্ম হতে পারে।

# তরল ফাউনডেশন, কনসিলার ইত্যাদির আয়ু ৬ মাসের বেশী থাকে না। তাই চেষ্টা করুন ছোট ছোট পরিমাণে কিনতে। যেন ৬ মাসেই ফুরিয়ে যায়।

# আই এবং লিপ পেন্সিল ১ বছর পর্যন্ত ভাল থাকে।

# ক্রিম ফাউন্ডেশন ও ক্রিম আই শ্যাডো ৩ থেকে ৬ মাস পর্যন্ত থাকে। ভাল ব্র্যান্ডের কসমেটিকস হলে অবশ্য ১ বছর পর্যন্ত ব্যবহার উপযোগী থাকে।

# পাউডার বেসড প্রডাক্ট ২ বছর ভাল থাকে। পাউডার আইশ্যাডো প্রায় ৩ বছর পর্যন্ত ভাল থাকে। তবে ব্লাশঅন ভালো থাকে ৬ মাস।

# ক্রিম ও জেল কিনজার মোটামুটি নেলপলিশ ১ বছর ভাল থাকে আর ঠিকমত সংরক্ষণ করতে পারলে আরও কিছুদিন ভাল রাখা যাবে।

# ফেসিয়াল ক্লিঞ্জার প্রায় ৬ মাস ভাল থাকে। আর ফেসিয়াল টোনার নিশ্চিন্তে ১ বছর পর্যন্ত  ব্যবহার করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র: প্রিয় লাইফ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *