ফর্সা আর নজরকাড়া ত্বকের জন্য ফ্লাওয়ার ফেসমাস্ক

সৌন্দর্য এর অন্যতম প্রতীক হচ্ছে ফুল। ফুলের সৌন্দর্য আর সৌরভের কাছে পরাস্থ হননি এমন মানুষ এই পৃথিবীতে বিরল। ফুল দিয়ে তৈরি এমন কিছু ফেসমাস্ক যেগুলো আপনার ত্বকের লাবণ্য আর উজ্জ্বলতা ও ফর্সাভাব বাড়িয়ে তুলবে। আর সবচেয়ে বড় কথা হল এগুলোর জন্য আপনাকে কোথাও ছুটাছুটি করতে হবে না, ঘরে বসে আপনি আপনার নিজের হাতে ত্বকের জন্য এই ফ্লাওয়ার ফেসমাস্ক রেডি করতে পারবেন।

০১. ল্যাভেন্ডার ( Lavender ) ফুলের মাস্ক –
ল্যাভেন্ডার ফুল থেকে পাঁপড়ি তুলে নিয়ে কিছু পরিমাণ পানি মধ্যে পাঁপড়িগুলো বয়েল করুন। এরপর এই পানি থেকে পাঁপড়ি তুলে নিয়ে সামান্য পরিমাণ ওটস পাউডারের সাথে মিশিয়ে নরম পেস্ট বানিয়ে তা মুখে লাগান এবং এটি শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার পরিষ্কার পানি দিয়ে আপনার মুখ ধুয়ে ফেলুন। ল্যাভেন্ডার মাস্ক আপনার ত্বকের ফর্সাভাব ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে এবং ত্বক লাবণ্যময় করে তুলবে।

০২. গোলাপ ( Rose ) ফুলের ফেসমাস্ক –
কয়েকটি গোলাপের পাপড়ি নিয়ে তাতে দুধ ও হুইট ফ্লেকস( wheat flakes) একসাথে মিশিয়ে নরম পেস্ট আকারে বানিয়ে নিন। এবার এই পেস্ট আপনার মুখের ত্বকে ভালোভাবে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। আপনি এই মাস্ক বানাতে শুকনা গোলাপের পাঁপড়িও ব্যবহার করতে পারেন আর এই মাস্ক মুখে লাগানোর আগে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিন। এই মাস্ক আপনার স্কিন টোন বাড়িয়ে ত্বক উজ্জ্বল করার সাথে সাথেই ত্বকের পোরসগুলোর সঠিক খেয়াল রাখে।

০৩. জুঁই ( Jasmin ) ফুলের মাস্ক –
কিচ্ছুনা শুধু মাত্র কিছু পরিমাণ জুঁই ফুলের পাঁপড়ি পানি সহ আপনার ফ্রিজে রেখে খানিকক্ষণ পর বের করে পেস্ট বানিয়ে আপনার ত্বকে লাগান। একটু অপেক্ষা করে আপনার ত্বক ধুয়ে ফেলুন এবং প্রতিদিনের ব্যবহার করা ক্রিম মুখে লাগিয়ে নিন।

এই গরমের দুপুরে জুঁই ফুলের মাস্ক আপনার ত্বকে ঠাণ্ডা অনুভূতি দেওয়ার সাথে আপনার ত্বকের সানটান এক কথায় রোদে পোড়া ভাব তুলে দেবে।

০৪. পদ্ম ( Lotus ) ফুলের মাস্ক –
তাজা কিছু পদ্ম ফুলের পাঁপড়ি সংগ্রহ করে সেগুলো অল্প পরিমাণ পানিতে ফুটান। এবার এই পানি আপনার ত্বকে মাস্ক হিসেবে ব্যবহার করুন। অবশ্যই পাঁপড়ি বয়েল করার আগে ধুয়ে নিতে ভুলবেন না। পদ্ম ফুল ভিটামিন ও মিনারেলে ভরপুর যা আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখে ও ত্বক কমনীয় করে।

লিখেছেনঃ রুমানা রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *