বাসি ভাত দিয়ে তৈরি করুন ভিন্ন স্বাদের কয়েকটি খাবার!

বাসি ভাত দিয়ে ফ্রাইড রাইস বা ভাত ভাজা তৈরি করতে পারেন। কিন্তু জানেন কি? এই বাসি ভাত দিয়ে এমন কিছু তৈরি করা যায়, যা অনায়াসে মেহমানের সামনে পরিবেশন করা যায়। কেউ বুঝতেই পারবে না যে এটা বাসি ভাত দিয়ে বানানো? চলুন, তাহলে জেনে নিই অসাধারণ মজার ও একদম সহজ রেসিপি।shajghor_Stale riceভাত – ডাল দিয়ে একটি মজার রুটি –
ফ্রিজে জমেছে বাসি ভাত আর ডাল? একটি কাজ করুন, এই বাসি ভাত ও ডাল ব্লেন্ডারে দিয়ে ভালো করে পিষে ফেলুন। একদম মসৃণ আর থকথকে একটা পেস্ট হবে। পাতলা হয়ে গেলে ময়দা মিশিয়ে ঘন করুন। এরপর মাঝে দিন পেঁয়াজ, মরিচ কুচি, সামান্য ভাজা জিরার গুঁড়ো, অল্প লবণ, ধনিয়া কুচি, চাইলে দিতে পারেন মাংস। এবার ভালো করে মিশিয়ে নিন। প্যানে অল্প তেল দিয়ে এই মিশ্রন থেকে প্যানকেক বা দোসার মত বানিয়ে ভাজুন। প্যানকেনের মত মোটা বা দোসার মত পাতলা, দুটোই করতে পারেন। একপাশ সোনালি ও মচমচে হলে উল্টে দিন। পরিবেশন করুন সস বা চাটনির সাথে।

রাইস অ্যান্ড চীজ বল –
বাসি ভাতকে গরম করে ভালো করে চটকে নিন। আপনার পছন্দমত যে কোন মশলা দিন স্বাদের জন্য। ভেতরে চীজের পুর দিয়ে গোল গোল বল তৈরি করুন। এই বল ডিমে ডুবিয়ে বিস্কিটের গুঁড়ায় গড়িয়ে নিন। সোনালি করে ভেজে তুলুন। দারুণ সুস্বাদু স্ন্যাক্স তৈরি!

স্টাফড ক্যাপ্সিকাম কাপ –
ভাতকে মাখিয়ে নিন পেঁয়াজ, মরিচ, ধনেপাতা ও আপনার পছন্দের যে কোন মশলা দিয়ে। এবার ক্যাপসিকামকে মাঝ বরাবর কেটে নিন। ভেতর থেকে বীজ বের করে এই ভাটের মিশ্রণ ভরুন। ওপরে মোটা করে চীজ ছড়িয়ে দিন, এই কাপগুল ওভেনে বেক করুন সোনালি হয়ে যাওয়া পর্যন্ত। আরেকটি অসাধারণ খাবার তৈরি!

রাইস পুডিং উইথ ফ্রুটস –
ঘন দুধ নিন। এর মাঝে ভাতগুল দিয়ে দিন। সাথে চিনি ও ভ্যানিলা দিন। এবার জ্বাল দিতে থাকুন। মাঝে একবার ডাল ঘুটনি দিয়ে ভালো করে ঘুটে দেবেন যেন ভাতগুলো আধাভাঙ্গা হয়ে যায়। একদম ঘন হলে নামিয়ে নিন, ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করুন। পরিবেশন করুন আপনার পছন্দের যে কোন ফল ও আইসক্রিমের সাথে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *