বিয়ের পর যে ৫টি ভূল থেকে দূরে থাকবেন

নতুন নতুন যখন বিয়ে হয় তখন মানুষ এমনিতেই একটু অগোছালো হয়ে যায়। যার ফলে নতুন নতুন বিয়ের পর অভিজ্ঞতার অভাবে কিংবা আবেগের বশবর্তী হয়ে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই বেশ কিছু ভুল করে থাকে। shajghor_biyer porএজন্যে নিজেদের যেমন ক্ষতি হয়, তেমনি মাঝে মাঝে বেশ লজ্জায় পড়ে যেতে হয়। একটু সচেতন হলেই এই ভুলগুলো এড়ানো সম্ভব।

১/ প্রথম ভুল সময়জ্ঞানের অভাব। যার ফলে বিয়ের পর দেখা যায়, নতুন বউকে পেয়ে কিংবা স্বামীকে সময় দিতে গিয়ে পুরনো বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয়স্বজনদের সময় দেওয়া হয়ে ওঠে না। এতে করে অনেকেই যেমন মশকরা করেন। তেমনি অনেকে আবার সিরিয়াসলি রাগ করে বসেন। কাজেই আদিখ্যেতা কম প্রকাশ করাই ভাল।

২/ দ্বিতীয় ভুল স্ত্রী/স্বামী পেয়ে বাবা-মাকে অবহেলা। অনেকে আছেন বিয়ের পর বাবা-মাকে কম সময় দেন। সংসারে খরচের মাত্রাটাও কমিয়ে ফেলেন। যে কোনও কাজে বৌয়ের পরামর্শ নেন। বাবা মাকে প্রায়ই আগের মতো গুরুত্ব দেওয়া হয় না, যা মোটেও ঠিক না। বিয়ের পর বৌয়ের গুরুত্ব বুঝার সাথে সাথে বাবা-মায়ের গুরুত্বটা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেললে চলবে না।

৩/ তৃতীয় ভুল মাত্রাতিরিক্ত শারীরিক মিলন। বিয়ের কয়েক মাস দাম্পত্য জীবনে দৈহিক মিলনের মাত্রা বেশি থাকে। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভাল নয়, কাজেই সাবধান থাকা ভাল। মনে রাখতে হবে, শারীরিক মিলন দাম্পত্য জীবনে গুরুত্বপূর্ণ,কিন্তু অতিরিক্ত মিলনের ফলে শরীরের ক্ষতি হোক তা কারও কাম্য নয়।

৪/ চতুর্থ ভুল খরচ জ্ঞান না থাকা। অনেকে আছেন বিয়ের পর বেহিসাবি হয়ে যান। অনর্থক নতুন বউকে খুশী করার জন্য খরচ করেন। যা মোটেও ঠিক নয়। সামর্থ্য অনুযায়ী খরচ করা উচিত। শশুর বাড়িতে যাওয়ার সময়ও সামর্থ্যের প্রকাশ ঘটানো উচিত। সামর্থ্যের বাইরে বেশি বেশি খরচ করলে শেষে বিপদে কিন্তু আপনিই পরবেন।

৫/ পঞ্চম ভুল তাড়াতাড়ি সন্তান নেয়ার চিন্তা। বিয়ে করার সাথে সাথেই অনেকে সন্তান গ্রহণের ইচ্ছা প্রকাশ করেন। কিন্তু বিয়ের পর প্রথম একটা বছর অন্তত সন্তান নেয়ার চিন্তা না করাই ভালো। বিয়ের পর দু/এক বছর নিজেদেরকে সময় দিন। দুজনে দুজনার সঙ্গ উপভোগ করুন মন ভরে। এরই ফাঁকে নিজেদেরকে সন্তানের দায়িত্ব নেয়ার যোগ্য করে তুলুন এবং মানসিক ভাবে প্রস্তুত হয়ে নিন। কারন প্রস্তুতি ছাড়া সন্তান পালনের মত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়াটা বোকামি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *