ভালোবাসার মানুষটিকে যে ৭টি কথা ভূলেও জানাবেন না

ভালোবাসা মানে বিশ্বাস। তাই আমরা সকলেই কমবেশি মনে করি যে ভালোবাসার মানুষকে নিজের সমস্ত সত্য জানিয়ে দেয়া উচিত। কিন্তু আসলেই কি তাই? ব্যাপারটা কিন্তু একেবারে উল্টো। আপনি যদি সম্পর্কে শান্তি চান এবং এটা চান যে স্ত্রী আপনাকে সর্বদা ভালবাসুক, তাহলে কিছু কথা একেবারে চেপে যাওয়াই ভালো।  জেনে নিন কোন ৭ টা কথা এমন নারীকে বলবেন না, যাকে আপনি বিয়ে করতে চান।shajghor_valobasar_manush১. প্রাক্তন যৌন সম্পর্ক
নিজের পুরনো প্রেমিকাদের সাথে যৌন সম্পর্কের কথা হবু স্ত্রীকে বলার কোন প্রয়োজন নেই। একজন থাকলে সেটা না হয় বলতে পারেন, কিন্তু একাধিক মেয়ের সাথে হয়ে থাকলে সেটা বলতে যাবেন না ভুলেও। যা অতীত, তা অতীত। ভবিষ্যতে নিজেকে সামলে চলুন, তাতেই হবে।

২. পরিবারের বদনাম
নিজের পরিবার সম্পর্কে কোন বদনাম বা বাজে কথা হবু স্ত্রীকে বলবেন না। তাহলে ভবিষ্যতে অশান্তি অনিবার্য।

৩. বন্ধুদের সম্মান রক্ষা করুন
নিজের বন্ধুদের সম্পর্কে কোন গোপন কথা, বা তাঁদের কোন বাজে কাজের কথাও জানাবেন না। যদি বিয়ের পরও বন্ধুদের সাথে ভালো সম্পর্ক চান, তাহলে বহু স্ত্রীর চোখে বন্ধুদের সম্মান রক্ষা করুন।

৪. প্রেমিকাদের বিস্তারিত
নিজের প্রাক্তন প্রেমিকাদের সাথে যোগাযোগের বিস্তারিত কখনোই হবু স্ত্রীকে জানাবেন না। অনেক মেয়েই খুঁতখুঁতে হয়ে থাকেন এবং আগ বাড়িয়ে অতীত ঘাঁটতে যান। এতে করে যা হয়, তা হচ্ছে অহেতুক অশান্তি।

৫. যে কারণে নিজেকে দোষী ভাবেন
যদি কোন মেয়ের মন আপনি ভেঙে থাকেন, সেই ঘটনাও হবু স্ত্রীকে আগ বাড়িয়ে বলার দরকার নেই। কেননা এতে আপনার প্রতি তাঁর ভরসা নষ্ট হয়ে যাবে। আপনি মনে মনে অনুতপ্ত হওয়াটাই যথেষ্ট।

৬. তার চাইতে ভালো কাউকে চেয়েছিলেন-
আপনি হয়তো স্ত্রী হিসাবে আরও অন্যরকম কাউকে চেয়েছিলেন। হয়তো মনে মনে অন্য কাউকে ভেবেছিলেন। কিংবা নিজের কোন এক প্রেমিকার প্রতি আপনার এখনো গোপন আবেগ রয়ে গেছে। এই বিষয় ভুলেও কখনো হবু স্ত্রীকে বলবেন না। এমনকি বলার চিন্তাও করবেন না। মনের কথা মনে রাখুন।

৭. কম বয়সের দুষ্টুমি
কম বয়সে নানান ধরণের দুষ্টুমি বন্ধুদের সাথে মিলে অনেক ছেলেই করে থাকেন। যেমন অ্যালকোহল খাওয়া বা পর্ণ আসক্ত হওয়া ইত্যাদি। যদি বয়সের সাথে এইসব বাজে অভ্যাস ছেড়ে দিয়েই থাকেন, তাহলে আর অতীতের কথা বহু স্ত্রীকে জানাবার কোনই প্রয়োজন নেই।

No comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *