মুখে জমেছে বাড়তি মেদ? জেনে নিন মুক্তি পাবার সহজ কৌশল!

অনেকের মুখে মেদ জমে গাল ফুলে যায়। শরীর বেশি ভারী না হলেও মুখের এই মেদের কারণে অনেক মোটা দেখায়। আয়নায় নিজের দিকে তাকিয়ে কিংবা নিজের ছবি দেখে অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করেন। অনেকেই এটা কমানোর জন্য সার্জারি করিয়ে থাকেন। কিন্তু এত ঝামেলায় না গিয়ে কিছু প্রাকৃতিক সহজ উপায়ও আছে এই মুখের বিরক্তিকর মেদ থেকে মুক্তি পাওয়ার।চিনি ছাড়া চুয়িং গাম চিবান –
চুয়িং গাম চিবানো মুখের ব্যায়ামের মত কাজ করে। এতে মুখের মাংসপেশি টান টান হয়। চিনি ছাড়া চুয়িং গাম দাঁতের জন্যও ভালো। তাই বাজারে যে সব সাধারণ চুয়িং গাম পাওয়া যায় তা ব্যবহার না করে চিনি ছাড়া চুয়িং গাম চিবোন। দ্রুত ভালো ফল পাবেন।

ডিমের সাদা অংশের তৈরি ফেসিয়াল মাস্ক –
ডিমের সাদা অংশের তৈরি এই ফেসিয়াল মাস্ক খুব দ্রুত মুখের মেদ কমাতে সহায়তা করে। এই মাস্কটি তৈরি করতে আপনার লাগবে ২ টি ডিমের সাদা অংশ, ১ টেবিল চামচ দুধ, সামান্য পুদিনা পাতার তেল (অলিভ অয়েলে পুদিনা পাতার রস মিশিয়ে ঘরেই তৈরি করতে পারেন পুদিনা পাতার তেল), ১ টেবিল চামচ মধু এবং ১ টেবিল চামচ লেবুর রস। এই সব কটি উপাদান একটি পাত্রে নিয়ে বেশ ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর মিশ্রণটি মুখের নিচের অংশ থুতনির দিকে লাগান। ৪৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই মাস্কটি ব্যাবহারে দ্রুত ফল পাবেন।

গ্লিসারিন মাস্ক –
একটি খুব সহজ এবং সাধারণ গ্লিসারিন মাস্কের ব্যবহারেও মুক্তি পেতে পারেন মুখের মেদ থেকে। এই মাস্কটি তৈরি করতে আপনার লাগবে ১ টেবিল চামচ গ্লিসারিন, ১ টেবিল চামচ বাথ সল্ট, কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল। সব কটি উপকরন ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে থুতনি এবং গলায় লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। এরপরে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ বার এই মাস্কটি ব্যবহার করুন। মুখের মেদ দূর হবে সহজেই।