যে ৭ টি কারণে মশা আপনাকেই বেশী কামড় দেয়!

মশা তো সবাইকেই কামড়ায়। কিন্তু আপনাকে বুঝি একটু বেশিই কামড়াচ্ছে? তাহলে বলতে হবে মশারা একটু বেশিই ভালোবাসে আপনাকে! কিন্তু কেন? এ নিয়ে অনেকগুলো তত্ত্ব রয়েছে। আর তার ভেতর থেকেই নিজেরটা জেনে নিন এই ফিচারটি পড়ে। জেনে নিন আপনি মশার কাছে এতটা প্রিয় খাদ্য হওয়ার কারণগুলো আসলে কী কী!১) সাধারণেই অসাধারণ –
নানা রকম কারণ রয়েছে মশার কাছে আপনার পছন্দনীয় খাবার হয়ে ওঠার পেছনে। তবে এছাড়াও পরিসংখ্যান অনুসারে দশজন মানুষের একজন সবসময়ই মশার Mosquito কাছে প্রিয় হয়ে থাকেন। বিখ্যাত দালাই লামাও এর ব্যতিক্রম ছিলেন না। মশাকে নিয়ে তিনি বলেন- মশা আর ছাড়পোকার প্রতি আমার আচরণ শান্তিপূর্ণ বা অনুকূল নয়!

২) গন্ধ –
আমাদের একেকজনের শরীরে একেকরকম গন্ধ রয়েছে। মশাদের ভেতরে পুরুষ নয়, নারী মশারাই সাধারণত রক্ত পান করে। আর তাও নিজেদের ডিমকে পুষ্টি দেওয়ার জন্যে। ফলে বাজারে কিছু কিনতে গেলে আমরা যেমন সবচাইতে সেরা জিনিসটাই বাছাই করতে চাই, ওরাও সেরকম সবচাইতে ভালো আর পুষ্টিসম্পন্ন রক্তই পান করতে চায় নিজেদের সন্তানদের জন্যে। আর সেটা তারা নির্ধারণ করে মানুষের শরীরের গন্ধের ওপর ভিত্তি করে। প্রায় ১০০ ফুট দূর থেকেই এই গন্ধ চিনতে পারে মশারা।

৩) ব্যাকটেরিয়া –
আমাদের শরীরে বংশগতভাবেই অনেক ব্যাকটেরিয়া বহন করি আমরা। সেটা আমাদের শরীরের কোষের চাইতেও ১০ গুন বেশী পরিমাণে। আর সেগুলো এতটাই জড়িয়ে তাকে আমাদের শরীরের রোগ-প্রতিরোধের ব্যাপারের সাথে যে অনেক ধুয়েও সেগুলোকে তাড়ানো যায়না। আর এই ব্যাকটেরিয়াগুলোই আমাদের শরীরে এমন রাসায়নিক পদার্থের উত্পাদন করে যে মশারা অনেক বেশি আকৃষ্ট হয়।

৪) রক্তের ধরণ –
রক্তের কোন গ্রুপে আপনার অবস্থান সেটাও অনেক সময় নির্ধারন করে দেয় আপনি মশাদের কাছে কতটা জনপ্রিয় হবেন। পরীক্ষায় পাওয়া যায় ও এবং এ রক্তের গ্রুপের মানুষদেরকে দ্বিগুন বেশি পছন্দ করে মশারা। আর আপনি কোন গ্রুপের রক্তের অধিকারী সেটা বোঝাতে মোটেও রক্ত খেয়ে দেখতে হয়না মশাদের। দূর থেকেই ৮৫ শতাংশ নিশ্চিত হয়ে যায় আপনার রক্তের ধরণ সম্পর্কে।

৫) ঘাম –
অতিরিক্ত ঘামেন বা অনেক বেশি কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গত হয় আপনার শরীর থেকে? তাহলে বলতে হবে আপনিও আছেন মশাদের পছন্দের খাবারের তালিকায়।

৬) খাবার –
খাবারের ধরনের ওপর নির্ভর করে মশারা Mosquito আপনার রক্ত কতটা পছন্দ করে। দেখা যায়- পনির, আচার, সয়া, মিষ্টিজাতীয় খাবার ও সব্জি খান যারা তাদের রক্ত ও ত্বকে ল্যাক্টিক অ্যাসিড বেশি তাকে। আর ল্যাক্টিক অ্যাসিড অনেক বেশি পরিমানে টানে মশাদেরকে।

৭) ত্বকের বৈশিষ্ট্য –
অনেক সময় দেখা যায় কেবল ত্বকের বৈশিষ্ট্যের কারনেই আপনার মনে হয় মশারা আপনাকে অনেক বেশি কামড়াচ্ছে। আসলে আপনার পাশের ব্যাক্তিটিকেও হয়তো আপনার মতন বা আপনার চাইতে অনেক বেশি কামড়াচ্ছে তারা। কিন্তু কেবল তার ত্বকের বৈশিষ্টের কাণেই সেটা বুঝতে পারছেনা সে। আর আপনি বুঝতে পারছেন অনেক বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *