শুষ্ক ও ফাটা চুল বড় করার ৭টি পরামর্শ

চুল বড় করে তোলা হয়তো সময়ের ব্যাপার। কিন্তু চুলকে সুন্দর, ঝরঝরে আর পরিপুষ্ট অবস্থায় রাখাটা বেশ কঠিন। যাদের চুলের অবস্থা ভলো নয় এবং উস্কোখুস্কো, তারাও চুল বড় করে তুলতে পারেন।

তবে কিছু বিষয়ে একটু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। যেমন-

১. শ্যাম্পু বদলে ফেলুন:
চুলের অবস্থা বাজে হলে শ্যাম্পু বদলে দেখুন পার্থক্য হয় কিনা। অনেকের চুলে সব শ্যাম্পু স্যুট নাও করতে পারে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে শ্যাম্পু বদলানোর কারণে চুলের চেহারা বদলে যায়। এভাবে বার বার শ্যাম্পু বদলে চুলের জন্য মানাসসই শ্যাম্পু খুঁজে নিতে পারেন।

২. তাপ এড়িয়ে চলুন:
শুকনো আর ফাটা চুল বড় করতে হলে তাপ এড়িয়ে চলতে হবে। চুল আয়রন করবেন না। স্ট্রেইট করা থেকে আপাতত বিরত থাকুন। চুল বড় করে তারপর একটি ব্যবস্থা করা যাবে।

৩. ভিটামিন খান:
যদি চুলের জন্য প্রতিদিনই মাল্টিভিটামিন খেয়ে থাকেন, তার সঙ্গে যোগ করুন ফোলিক এসিড ও বায়োটিন। এতে মাথার খুশকি দূর হবে এবং স্কাল্পের ত্বক পরিপুষ্ট মনে হবে।

৪. হেয়ারকাট:
একটি সুন্দর পছন্দের চুলের কাট দিয়ে দিন। সেই চুলটিকে বড় করতে থাকুন। কোনো কাটিং ছাড়া এমন শুকনো চুল দেখতেও ভালো লাগে না। তাই একটি সুন্দর হেয়ারকাট দিয়ে চুল বড় করুন।

৫. হেয়ার কন্ডিশনার ব্যবহার করুন:
চুলের শুষ্কতা দূর করতে হলে তাদে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। এতে মলিনভাব দূর হয়ে যাবে। এ ছাড়া ফাটা চুলও কিছুটা সুস্বাস্থ্য ফিরে পেতে পারে। দুই-তিন দিন পর পরই সাধারণ কন্ডিশনার অথবা সপ্তাহে একদিন ডিপ কন্ডিশনার ব্যবহার করতে পারেন।

৬. খাবার বদলে ফেলুন:
খাবারের ওপর যে চুলের স্বাস্থ্য নির্ভর করে তা আমরা প্রায়ই ভুলে যায়। তাই রেস্টুরেন্টে গিয়ে চিজপূর্ণ একটি বারগার খাওয়ার আগে চুলের কথা ভেবে দেখবেন। ভিটামিন ই-যুক্ত খাবার বেশি খাওয়ার চেষ্টা করবেন।

৭. পানি খান:
পানি শুধু দেহকেই সুস্থ রাখে না, চুলের বৃদ্ধির জন্যও বেশ কার্যকর। তাই নিয়মিত বিশুদ্ধ পানি খান।
সূত্র : ইন্টারনেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *