সারাদিনের ক্লান্ত ত্বকের যত্ন কীভাবে নিবেন? জেনে নিন!

সংসার, কর্মক্ষেত্র সব সামলে যখন আপনি ক্লান্ত তখন মনে রাখতে হবে আপনার সাথে সাথে আপনার ত্বকও বেশ ক্লান্ত, নিজের ক্লান্তি দূর করতে হয়তো আপনি বিশ্রাম নিচ্ছেন খাচ্ছেন বা ঘুমুচ্ছেন কিন্তু ত্বকের ক্লান্তি দূর করতে আপনি কী করছেন। ত্বকের যত্ন নিয়ে আপনার এমন অসচেতনতাই ত্বক নষ্ট হওয়ার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করে। তাই এবার আপনার জন্য রইল কিছু পরামর্শ।


সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠেই একগাদা কাজ। নাস্তা বানানো, দুপুরে অফিসে নিয়ে যাওয়ার খাবার রেডি করা, স্বামীর নতুন কিছু খেতে চাওয়ার আবদার, বাচ্চার স্কুল—সব মিলিয়ে এক এলাহি কাণ্ড। যৌথ পরিবারে থাকলে তো কথাই নেই, এর সঙ্গে আবার সবার মনও জুগিয়ে চলতে হবে।

রাস্তার দূষণ, জ্যামের অত্যাচার সহ্য করে অফিসে গিয়েও একগাদা কাজ, আবার বাসায় ফিরেই দশভুজা হয়ে কাজে লেগে যাওয়া। সন্ধ্যার চা-নাস্তা, রাতের খাবার তৈরি, বাচ্চাকে পড়ানো—সবশেষে খাওয়া দাওয়া সেরে একটু ক্লান্তির ঘুম। বেশিরভাগ কর্মজীবী নারীর দৈনন্দিন রুটিন এটি। কাজ করেই কূল-কিনারা পাওয়া যায় না—এর মধ্যে আবার ত্বক পরিচর্যার সময় কোথায়! কিন্তু আপনি কি জানেন আপনার আর দশটা অভ্যাসের মতো আপনার ত্বকও আপনার কাছে একটু যত্নআত্তি চায়। প্রতিদিনকার এত ধকল, সাথে অফিসে যাওয়া-আসার পথের দূষণে আপনার ত্বক ম্লান হয়ে যেতে থাকে দিন দিন। সবার তো আর এত কাজের ভিড়ে পার্লারে গিয়ে পরিচর্যা করা হয়ে ওঠে না। আপনি আপনার এই নিজস্ব রুটিনের মধ্যে থেকেই আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রাখতে পারেন। এতে আপনার খুব একটা সময় যাবে না।

যেমন, সকালে উঠে আপনি যখন ফ্রেশ হতে যাবেন, সেই সময়টাতেই একটু ফেসওয়াশ দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। ঘুম থেকে ওঠার পর ত্বকে যে তৈলাক্ত ভাব থাকে, এটা চলে যাবে। অফিসে যাওয়ার সময় একটু ময়েশ্চারাইজার লাগান, যদি কড়া রোদের মধ্যে বের হতে হয় তাহলে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। অফিসে দিনের প্রায় পুরোটা সময়ই চলে যায়। তাই নিয়মিত কাজের ফাঁকে ৩-৪ বার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। পানি দেওয়া সম্ভব না হলে ওয়েট টিস্যু দিয়ে মুখ মুছে ফেলে একটু ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। আপনি যেমন সারাদিনের ধকলে ক্লান্ত হয়ে যান, তেমনি কিন্তু ক্লান্ত হয়ে যায় আপনার ত্বক।

যদি বাসায় ফিরে গোসল করার অভ্যাস থাকে তাহলে গোসলের আগে মুখে একটু মধু ম্যাসাজ করতে পারেন নয়তো ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। গোসল শেষে শীতকাল হলে বডি লোশন ব্যবহার করুন। আর মুখে মাখুন হালকা কোল্ডক্রিম। শোবার আগে একবার মুখ ধুয়ে নিন। একটু নাইট ক্রিম বা অ্যান্টি অ্যাজিং ক্রিম মুখে মেখে নিয়ে চোখের চারপাশে আই ক্রিম লাগিয়ে ঘুমোতে যান। ছুটির দিনে অবশ্যই একটু সময় বের করে মুখে ফেসপ্যাক লাগান। মুলতানি মাটি, মধু আর দই দিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করে লাগান। আর যদি একান্তই বানাতে না পারেন তাহলে বাজারে অনেক রেডি ফেসপ্যাক পাওয়া যায়, এগুলো কিনে ব্যবহার করতে পারেন। শুধু এই একটু সময় আপনার ত্বক পরিচর্যার জন্য ব্যয় করুন, দেখবেন আপনার ত্বকের জেল্লা ঠিকই বজায় থাকবে।

চটজলদি কিছু সমাধান –
যখনই ক্লান্তি অনুভব করবেন তখনই মুখে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিন। এতে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে, যার প্রভাব আপনি খুব তাড়াতাড়িই অনুভব করতে পারবেন। তবে ফ্রিজের পানি কখনও ব্যবহার করবেন না। এক্সারসাইজ বা শরীর চর্চা করুন নিয়ম করে। এতে আপনার সারা শরীরের রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক থাকবে এবং ত্বকও থাকবে টান টান। ক্লান্তি দূর করার জন্য অনন্য একটি উপায় হলো—ম্যাসাজ। এগুলো করতে অসুবিধা হলে বেশি করে হাঁটুন। লিফটের বদলে সিঁড়ি ব্যবহার করুন।