সুন্দর থাকতে ব্যবহার করুণ ঘরোয়া উপকরণ

রূপচর্চা থেকে শুরু করে সুস্থ ও সুন্দর থাকতে ধনেপাতা, তুলসী পাতা, চন্দন ও হলুদ বাটা এই উপকরণগুলোর কোনও বিকল্প নেই। তাই সুন্দর ও সুস্থ থাকার জন্য ব্যবহার করতে পারেন এই ঘরোয়া উপকরণগুলো। in detail কাঁচা হলুদ :
রূপচর্চার অন্যতম উপাদান হিসেবে প্রাচীন কাল থেকেই হলুদের কদর অনেক বেশি। কাঁচা হলুদবাটা, বেসন, চালের গুঁড়ো, টক দই মিশিয়ে বাড়িতে স্ক্রাবার তৈরি করতে পারেন। সপ্তাহে তিন দিন মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে হালকা হাতে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ হবে। ব্রন বা ফোড়ার দাগ দূর করতে কাঁচা হলুদ ও নিমপাতা বাটা মিশিয়ে লাগান। দাগ আস্তে আস্তে মিলিয়ে যাবে।

চন্দন :
চন্দন, মুলতানি মাটি ও গোলাপজল মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। নিয়মিত লাগালে বলিরেখা কমে যাবে ও ত্বকও অনেক বেশি উজ্জ্বল হবে। অ্যাকনে দূর করতেও চন্দন অনেক ভাল কাজ করে। এক চামচ চন্দন গুঁড়ো, ডিমের সাদা অংশ ও পাতিলেবুর রস মিশিয়ে অ্যাকনের উপর নিয়মিত লাগান। কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন। কয়েকদিনের মধ্যেই তফাত বুঝতে পারবেন।

তুলসী পাতা :
বয়স বাড়লে অনেক সময় চামড়া কুঁচকে যায়। এই সময় তুলসী পাতার রস ও নারকেলের পানি মিশিয়ে নিয়মিত গায়ে লাগান। চামড়া টান টান থাকবে।

পুদিনা পাতা :
পুদিনাপাতায় আছে ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন এ, ভিটামিন ডি। তাই পুদিনা পাতা ত্বকের জন্য খুব উপকারী। পুদিনাপাতা ও গোলাপের পাপড়ি একসঙ্গে পানিতে মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হলে তাতে লেবুররস মিশিয়ে ছেঁকে নিয়ে বোতলে ভরে ফ্রিজে রাখুন। গোসলের পরে সারা শরীরে লাগিয়ে নিন। ঘাম কম হবে।

ধনে পাতা :
ধনে পাতা রান্নায় তো স্বাদ বাড়ায়ই, রূপচর্চায়ও এর জুড়ি নেই। ধনে পাতায় ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ফসফরাস, ক্লোরিন আছে। তাই প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে খুবই কার্যকর। রোজ রাতে শুতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে ধনেপাতার রস দুধের সরের সাথে মিশিয়ে লাগান। একমাস ধরে লাগালে ঠোঁটের কালোভাব দূর হবে ও ঠোঁট কোমল হবে।

__ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না__

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *