সেনসিটিভ ত্বকের জন্য ফেসিয়াল ওয়াক্স

অনেক মেয়ের মুখেই প্রচুর রোম থাকে যার কারণে সে অন্য কারো সামনে যেতে বিব্রতবোধ করে। মুখের চুলের এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য নানা ধরণের ফেসিয়াল ওয়াক্স ও বিভিন্ন প্রকার পণ্য আছে। এই সব প্রোডাক্ট গুলো বিভিন্ন প্রকার রাসায়নিক দিয়ে তৈরি করা হয় যা আপনার ত্বকে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।


মুখের চুল দূর করার জন্য থ্রেডিং এবং টুইজিং সবচেয়ে ভালো। যদি আপনার ত্বক অনেক বেশি সংবেদনশীল হয় তাহলে থ্রেডিং এর সময় আপনি ব্যাথা পাবেন এবং মুখে কিছুটা চিহ্নও রেখে যাবে, যেমন- ফুলে যাওয়া, লাল হয়ে যাওয়া এবং চুলের গোড়ায় ব্যাক্টেরিয়ার ইনফেকশন ও হতে পারে।

যাদের সেনসিটিভ ত্বক তাঁরা জেনে খুশি হবেন যে এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান আছে যা দিয়ে নিজেই তৈরি করে নিতে পারেন হোম মেইড ফেসিয়াল ওয়াক্স যা আপনার মুখের অবাঞ্ছিত চুল দূর করবে সহজেই। আসুন তাহলে জেনে নেই হোম মেইড ফেসিয়াল ওয়াক্স Facial Wax তৈরির পদ্ধতি ও ব্যবহার বিধি।

যা যা লাগবে –

– চিনি
– লেবু
– মধু
– চামুচ
– সুতি কাপড়
– সসপ্যান বা কাঁচের ছোট বাটি

যেভাবে তৈরি করবেন –

– একটি সসপ্যান এ একটি লেবুর অর্ধেক অংশের রস বের করে নিন।
– এর মধ্যে একটি কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ পরিমাণ মধু দিন।
– তারপর এতে ১কাপ চিনি মিশ।
– এইবার পাত্রটি চুলায় বসিয়ে তাপ দিন যতক্ষণ না চিনি সম্পূর্ণ ভাবে গলে যায় এবং সকল উপাদান ভালোভাবে মিশ্রিত হয়।
– এছাড়াও আপনি এই উপাদান গুলো একটি কাঁচের ছোট বাটিতে নিয়ে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ২ মিনিট দিয়ে গরম করে নিতে পারেন।
– এক্ষেত্রে ২০ সেকেন্ড পর পর বাটিটি বের করে মিশ্রণটি নেড়ে দিতে হবে।
– তারপর মিশ্রণটি তৈরি হয়ে গেলে তাপ থেকে সরিয়ে নিয়ে ঠাণ্ডা করতে হবে।
– মিশ্রণটি আঠালো ও ঘন হবে, খুব বেশি ঠাণ্ডা বা খুব বেশি গরম যেন না হয়।

যেভাবে লাগাবেন-

১/ এবার মিশ্রণটি একটি ছোট চামুচ দিয়ে মুখের যেখানের চুল অপসারণ করতে চান সেখানে লাগান।

২/ তারপর ১ টুকরো সূতির কাপড় ওয়াক্স এর উপরে চেপে লাগান এবং চুলের বিপরীত দিকে দ্রুত টান দিয়ে উঠিয়ে নিয়ে আসুন।

৩/ চুল তোলার পর বেবি ওয়েল বা বরফ দিয়ে স্থানটি ম্যাসেজ করুন।

৪/ যদি আপনি বাসায় প্রথম বার এই ওয়াক্সিং করেন তাহলে আস্তে আস্তে শুরু করুন অর্থাৎ প্রথমে ছোট জায়গায় ওয়াক্সিং করুন।অভ্যস্ত হয়ে গেলে বেশি জায়গায় একবারে করতে পারবেন।

সেন্সেটিভ ত্বকে এই ফেসিয়াল ওয়াক্স ব্যবহার করলে অন্যান্য পদ্ধতির চেয়ে অনেক কম ব্যাথা পাবেন এবং ৬ সপ্তাহ পর্যন্ত ঝামেলা মুক্ত থাকবেন। এই ফেসিয়াল ওয়াক্স শুধু মুখের জন্যই না, আপনি আপনার সারা শরীরের অবাঞ্ছিত চুল দূর করার জন্য ব্যাবহার করতে পারবেন। চিনি এক্সফলিয়েটের জন্য অনেক কার্যকরী, তাই এই প্রকার ওয়াক্সিং এ আপনার ত্বক নরম ও কোমল হবে। চিনির এই ফেসিয়াল ওয়াক্স বারবার ব্যবহার করলে মুখের অবাঞ্ছিত লোমের বৃদ্ধি কমবে।