হাতের রেখা দেখে জেনে নিন আপনার ব্যক্তিত্ব এবং ভবিষ্যৎ সম্পর্কে

ভবিষ্যত্‍‌ জানার কৌতূহল সকলেরই থাকে। ভবিষ্যত্‍‌ জেনে অনেকে আশার আলো দেখতে পেয়েছেন, আবার অনেকেই হতাশ হয়েছেন। কিন্তু কেউই চেষ্টা ছাড়েননি। নিজের হাতের রেখাই ব্যক্তির কাছে সবচেয়ে রহস্যময়। কিন্তু সেই আঁকা-বাঁকা রেখার সাহায্যেই ব্যক্তি নিজের ভবিষ্যত্‍‌ জানতে চায়। হাতের রেখা অধ্যয়ন করে জেনে নিন আপনার ব্যক্তিত্ব, ভবিষ্যৎ, স্বাস্থ্য সম্পর্কে।

— যাঁদের বুধ উন্নত এবং উঁচু, তাঁদের সেন্স অফ হিউমার খুব ভালো। তাঁদের বাণী আকর্ষক এবং প্রভাবশালী বক্তা।

— যাঁদের বৃহস্পতি পর্বত উন্নত এবং বিস্তৃত তথা তর্জনী অধিক লম্বা এবং আঙুলের তৃতীয় পর্ব অন্য পর্বের তুলনায় উন্নত এবং পুষ্ট এমন ব্যক্তি অধিক শক্তি সম্পন্ন এবং প্রভাবশালী হয়ে থাকেন। পাশাপাশি এঁরা ভোজন রসিকও। হাতের লালচে ভাব বেশি হলে, এমন ব্যক্তি মদ্যপান করতেও ভালোবাসেন।

— হাতের রেখা Hand Line বেশি গভীর হলে তা ব্যক্তির জীবনে কম-বেশি সংঘর্ষের ইঙ্গিত দেয়। খুব মোটা এবং গভীর রেখা শুভ নয়। হাল্কা এবং ভাঙা রেখা শ্রেষ্ঠ নয়।

— যে ব্যক্তির জীবন রেখা অন্য রেখার তুলনায় সূক্ষ্ম এবং পাতলা, তাঁরা নিজের জীবনকে সংঘর্ষ পূর্ণ মনে করেন। জীবনরেখায় কোনও গর্ত, চিহ্ন, দ্বীপ, ক্রস থাকলে, তা স্বাস্থ্যের জন্য অশুভ সংকেত বহন করে। এমন ব্যক্তির বড় কোনও ঝুঁকি নেওয়া উচিত নয়। কারণ তাঁরা প্রায়ই কাল্পনিক আশঙ্কায় ভীত থাকেন।

— খুব মোটা এবং গভীর জীবনরেখাও স্বাস্থ্য বা আত্মবিশ্বাসের জন্য ভালো নয়। এমন ব্যক্তি নিজেকে খুব একটা স্বাস্থ্যবান মনে করেন না। এঁদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস খুব কম। এমন ব্যক্তি সবকিছুর জন্য ভাগ্যকে দায়ী করে থাকেন। এঁদের মধ্যে উত্‍‌সাহ এবং ফূর্তির অভাব দেখা দেয়।

হস্তরেখা এবং রোগ –

— কোনও রেখা জীবনরেখাকে কেটে এগিয়ে গিয়ে সূর্য পর্বতের নীচে হৃদয় রেখায় গিয়ে থামলে এবং সেখানে হৃদয় রেখা কাটা থাকলে বা বিন্দু অথবা দ্বীপ থাকলে তা হৃদরোগের কারণ হয়।

— জীবনরেখাকে কেটে কোনও রেখা চন্দ্রপর্বতের ওপরের অংশে থামে, তা হলে অন্ত্রের রোগ হতে পারে।

— যদি জীবন রেখাকে কেটে কোনও রেখা চন্দ্র ক্ষেত্রের মধ্যভাগে থামে, তা হলে গাট বা বায়ুজনিত রোগ হতে পারে।

সুত্রঃ প্রিয় লাইফ